দিনাজপুরে প্রাণীসম্পদ বিভাগের এ.আই টেকনিশিয়ানদের পদ সৃষ্টিসহ ৪ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ সভা

Share This
Tags

newsbdn

সিদ্দিক হোসেন দিনাজপুর প্রতিনিধি : চাকুরী স্থায়ীকরনসহ ৪ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে প্রানী সম্পদ বিভাগের সরকারের সুযোগ- সুবিধাবঞ্চিত এ আই টেকনিশিয়ানরা দিনাজপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ কর্মসুচী পালন করেছে।
শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় ময়দানের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে বাংলাদেশ প্রানী সম্পদ এ আই টেকনিশিয়ান কল্যান সমিতি বৃহত্তর দিনাজপুর জেলা কমিটির আয়োজনে চাকুরী স্থায়ীকরনসহ ৪ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ সভা কর্মসুচী পালিত হয়। সংগঠনের সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন,বৃহত্তর দিনাজপুর জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক অশোক কুমার দাস, সদস্য মোঃ শাহজাহান, ঠাকুরগাঁও জেলা কমিটির সভাপতি মোঃ হারুন আর রশিদ, পঞ্চগড় জেলা কমিটর সভাপতি মোঃ জিয়াউর রহমান, কাহারোল উপজেলা কমিটির সদস্য কার্তিক চন্দ্র রায় প্রমুখ।
বক্তারা বলেন,সরকারের গুরুত্বপূর্ণ একটি বিভাগ হচ্ছে প্রানী সম্পদ বিভাগ,রোদ ও বৃষ্টিসহ শতকষ্ট উপেক্ষা করে দীর্ঘদিন ধরে প্রানী সম্পদ বিভাগের এ আই টেকনিশিয়ান পদে কাজ করে আসলেও আমরা সরকারের কোন সুযোগ-সুবিধা পাইনা। প্রানী সম্পদ কর্মকর্তাদের নির্দেশে আমরা এ আই টেকনিশিয়ানরা ইউনিয়নের গ্রামগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চলের গরু-ছাগলের খামারসহ বাসাবাড়ির গোবাদি পশুর সকল প্রকারে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করি এবং চিকিৎসার জন্যে খোঁজখবর নিয়ে থাকি কিন্তু র্দূভাগ্যজনক হলেও সত্য আমাদের ও আমাদের পরিবারের খোজ খবর কেউই রাখেনা।
তারা বলেন, গ্রামগঞ্জের অর্থনৈতিক উন্নয়নে এবং মাঠ পর্যায়ের সকল কাজ আমরা করলেও সরকারের বেতনভাতাদি আমরা পাইনা। পরিবার-পরিজন নিয়ে আজ আমরা অসহায়ত্বের দিনাতিপাত করলেও কেউ আমাদেও উন্নয়নের কথা বিবেচনা করছেনা।
প্রায় ঘন্টাব্যাপী কর্মসূচীতে বলা হয়, রাষ্ট্র তার কর্মী-কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের অর্থনৈতিক সুরক্ষা দেবে সবার ক্ষেত্রে এমনটি চললেও এ.আই টেকনিশিয়ানদের ক্ষেত্রে বৈষম্য চলছে। আমাদের মাসিক মাত্র ৫শ’ টাকা ভাতা দেয়া হচ্ছে। যাতে করে ইউনিয়ন পর্যায়ে তারা সেবা প্রদান করলেও নিয়োগ না দেয়ায় আত্মকলহের সৃষ্টি হচ্ছে। বেতন ছাড়া কর্মীদের অমানবিক জীবন যাপন করতে হচ্ছে। যাতে করে অনেকের মধ্যেই কর্মের প্রতি অনাগ্রহের সৃষ্টি হচ্ছে ফলে গো-সম্পদের জাত উন্নয়ন না হয়ে অবনতি হবে বলে আশঙ্কা তাদের।
অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ সভায় ইউনিয়নে এ.আই টেকনিশিয়ানদের পদ সৃষ্টি করে নিয়োগ প্রদান, কৃত্রিম প্রজনন নীতিমালা লংঘন করে বেসরকারী সংস্থাগুলোর কর্মীদের প্রত্যাহার ও ব্যবস্থা গ্রহণ, একই ইউনিয়নে একাধিক এ.আই টেকনিশিয়ান নিয়োগ বন্ধসহ ৪ দফা দাবি উত্থাপন করা হয়।
দাবি বাস্তবায়ন না হলে আগামী ৩০ জানুয়ারী বিভাগীয় কমিশনারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান, ২৭ ফেব্রুয়ারী সহকারী পরিচালক কার্যালয়ের সামনে অবস্থান ধর্মঘট ও ১ মে থেকে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করার কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন