Published On: রবি, ডিসে ২৫, ২০১৬

জঙ্গী আস্তানায় ৫টি তাজা গ্রেনেড ও ২টি আত্মঘাতী বেল্ট উদ্ধার

Share This
Tags

newsbdn

ঢাকা: দক্ষিণ খানের আশকোনায় জঙ্গী আস্তানায় ৫টি তাজা গ্রেনেড ও ২টি আত্মঘাতী বেল্ট পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সোয়াতের ডিসি।

রাজধানীর দক্ষিণখানের পূর্ব আশকোনায় সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানার একটি কক্ষে ঢুকলেও অপর কক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঢুকতে পারছে না গ্যাসের কারণে। যে কক্ষটিতে তারা ঢুকেছে, সেখানে পাঁচটি গ্রেনেড পাওয়া গেছে। আর যে কক্ষে গ্যাসের কারণে ঢোকা যাচ্ছে না, সেখানেই পড়ে আছে কিশোর ‘জঙ্গি’ আফিফ কাদেরী নাবিলের মরদেহ।

বরিবার সকালে ৫০ পূর্ব আশকোনার সূর্য ভিলার নিচতলায় সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানাটিতে ঢুকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের ফরেনসিক ইউনিট এবং পুলিশের বিশেষ বাহিনী সোয়াতের সদস্যরা। এরপর বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সোয়াতের উপকমিশনার প্রলয় জোয়ার্দার সাংবাদিকদেরকে ভেতরের পরিস্থিতি জানান। এই গ্যাস কীসের সে বিষয়ে অবশ্য কিছু বলেননি তিনি।

পলাতক জঙ্গি নেতা মুসার অবস্থানের খবর পেয়ে শনিবার দিবাগত রাতে বাড়িটি ঘেরাও করে পুলিশ। আর শনিবার সেখান থেকে দুই নারী তাদের সন্তানসহ পুলিশের কাছে ধরা দেন। অপর একজন নারী আত্মসমর্পণের কথা বলে আত্মঘাতী হামলার চেষ্টা করেন।

সোয়া এক ঘণ্টা পর সোয়াত কর্মকর্তা প্রলয় জোয়ার্দার বাইরে এসে ভেতরের পরিস্থিতি জানান। তিনি বলেন, ‘‘আমরা ভেতরে একটি রুমে পাঁচটি গ্রেনেড এবং দুইটি লাইভ ভেস্ট পেয়েছি। ভেতরের অপর রুমটিতে প্রচুর গ্যাস থাকায় ভেতরে প্রবেশ করা যাচ্ছে না।’

এই ভেস্টে বিস্ফোরক বেঁধেই শনিবার আত্মঘাতী হামলার চেষ্টা করেন নিহত নারী। পুলিশ অভিযান শুরুর পর জানিয়েছিল ভেতরে থাকা সন্দেহভাজন সব জঙ্গিই আত্মাহুতি দিতে ভেস্ট পড়েছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন