লালমনিরহাটের সন্তান রামপালের (ইউএনও) রাজিব কুমার আর নেই

Share This
Tags

আদিতমারী (লালমনিরহাট) প্রতিনিধিঃ বাগেরহাটের রামপালের প্রয়াত ইউএনও রাজিব কুমার ও আদিতমারী টিএনটি পাড়ান বারিণ কুমার একমাত্র উপার্যনক্ষম ছেলে তার মরদেহবাহী হেলিকাপ্টার দেখার জন্য আদিতমারী জিএস মডেল স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে চারিদিকে হাজার,হাজার মানুষ ভীড় জমাতে ধাকেন এক নজর হেলিকপ্টার ও আদিতমারীর কৃতি সন্তান প্রিয় মানুষ খুলনা বাগেরহাট রামপালের ইউএনও রাজিবের লাশ। এদিকে ১৭ জানুয়ারী মঙ্গলবার সকালে   ইউএনও রাজিবের মৃত্যূর সংবাদ শোনার পর থেকে আদিতমারী এলাকায় সবার মাঝে একটা নিরব,নিস্তেজ পরিবেশ বিরাজ করেছিল মনে হয় আকাশ, বাতাস সব নিরব হয়ে গেছে। দুপুর থেকে রাজিবের মরদেহবাহী হেলিকাপ্টার থেকে গ্রহন করার জন্য আদিতমারী জিএস মডেল স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে  জেলা প্রশাসক  (ডিসি) আবুল ফয়েজ মোঃ আলাউদ্দিন খান অপেক্ষা করতে থাকেন। পরে  বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজিবের মরদেহবাহী হেলিকাপ্টার পাইলটের কাছ থেকে মরদেহ গ্রহন করেন তিনি।  লাশবাহী হেলিকাপ্টারটি যখন স্কুল মাঠে অবতরন করেন তখন মাঠে থাকা হাজার,হাজার জনতা হেলিকিপ্টার ও রাজিবের লাশ দেখার জন্য ভীড় জমান।
একই দিন সকাল ৬টার দিকে ঢাকা এ্যাপোলো হাসপাতালে কিডনী রোগে চিকিৎসাধীনাবস্থায় মারা যান রামপালের ইউএনও রাজিব কুমার। বিকেলে মৃত্যের মরদেহ বাগেরহাট থেকে লালমনিরহাটের আদিতমারী জিএস উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে তার মরদেহ গ্রহন করেন জেলা প্রশাসক এএফএম আলাউদ্দিন খান। হেলিকাপ্টারের পাইলটের কাছ থেকে মরদেহ গ্রহন করেই কেঁদে ফেলেন লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক। এ সময় অকালে ঝড়ে যাওয়া প্রিয় রাজিবের মরদেহ দেখে আগুন্তুকদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠে পুরো এলাকা। পরে আদিতমারী কেইউপি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে মরদেহে শেষ শ্রদ্ধাঞ্জালী অর্পন করেন জেলা প্রশাসন, মৃত্যের সহকর্মী ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় কর্মরত ইউএনও প্রয়াত রাজিবের সহকর্মি বন্ধু, আত্নীয় স্বজন ও এলাকাবাসী।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান জেলা প্রশাসক ও তার সহকর্মীরা। এ সময়ও কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন ডিসি এএফএম আলাউদ্দিন খান। প্রয়াত ইউএনও রাজিবের বাবা বারিণ কুমার একমাত্র উপার্যনক্ষম ছেলেকে হারানোর শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছেন। করেই কেঁদে ফেললেন লালমনিরহাট তার স্ত্রী বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ইউএনও অনিন্দিতা রায় দুই সন্তান চার বছরের মেয়ে অরুনী ও ৬মাসের ছেলে অর্ককে বুকে নিয়ে নির্বাক হয়ে পড়েছেন। রাতে তার মরদেহ কান্তেশ্বরপাড়া শ্মাশানে শেষ কৃত্য সম্পন্ন করা হবে বলে পরিবার সুত্রে জানা গেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন