আইসিটিতে তৈরি হবে ৩০ হাজার নারী উদ্যোক্তা!

Share This
Tags
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট:
 http://newsbdn.com

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) খাতে ২০১৮ সালের মধ্যে ৩০ হাজার নারী উদ্যোক্তা তৈরি করা হবে। যারা ডিজিটাল অর্থনীতিতে দেশের গুরুত্বপূর্ণ মানবসম্পদে পরিণত হবে।বুধবার (১৫ মার্চ) বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ কথা বলেন।

উইমেন অ্যান্ড আইসিটি ফ্রন্টিয়ার ইনিশিয়েটিভ (ওয়াইফাই) কর্মসূচির প্রি লঞ্চিং অনুষ্ঠানটি নারী দিবস উপলক্ষে যৌথভাবে আয়োজন করে বিসিসি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব আইসিটি ডেভেলপমেন্ট (বিআইআইডি) ও বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজি (বিআইডব্লিউটি)।জুনাইদ আহমেদ বলেন, সারা পৃথিবীতে আইসিটি খাতে নারীর অংশগ্রহণ মাত্র ১৫ শতাংশ। আর বাংলাদেশে তা ৯ শতাংশ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে এবং টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) ৫ নম্বর লক্ষ্য অর্জনে নারীদের আইসিটিতে আরও বেশি সম্পৃক্ত করতে হবে।

ওয়াইফাই কর্মসূচির মাধ্যমে ২০১৮ সালের মধ্যে দেশে ৩০ হাজার নারী উদ্যোক্তা তৈরি করা হবে। যারা ডিজিটাল অর্থনীতিতে মূল্যবান মানবসম্পদে পরিণত হবে। এছাড়া নারীর অংশ বাড়াতে আইসিটি খাতে নতুন উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে নারী-পুরুষের ফিফটি-ফিফটি সুযোগ তৈরি করছে সরকার। আশাকরি এতে এসডিজি বাস্তবায়ন হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনার জুলিয়া নিবলেট বলেন, শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা পৃথিবীতেই আইসিটিতে নারী অংশগ্রহণ কম। তবে এদেশের আইসিটি খাতের উন্নয়নের জন্য পাঠ্যসূচিতে বেসিক কম্পিউটার সায়েন্স বিষয়টি আবশ্যিক রাখতে হবে।

পলক বলেন, বাংলাদেশের নারীরাও অনেক মেধাবী। তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে আইসিটিতে দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে হবে। অস্ট্রেলিয়া সরকার ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকারের সাথে কাজ করার জন্য আটটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।বিসিসি’র নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আইসিটি বিভাগের সচিব সুবির কিশোর চৌধুরী, এশিয়া ফাউন্ডেশনের ডেপুটি কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ সারা টেইলর, ইউএনডিপি’র জেন্ডার অ্যান্ড পার্টনারশিপ স্পেশালিস্ট মেলিসা বালজানসহ দেশের আইসিটি খাতের নারী উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন